একটু চিন্তা করে দেখুন আপনি অনেক ভাল আছেন

শেয়ার করুন

একটু চিন্তা করে দেখুন আপনি অনেক ভাল আছেন। হ্যাঁ আমি আপনার কথা বলছি যে কিনা অনেক বেশি দরিদ্র না, আবার অনেক বেশি বড়লোকও না। আপনি হয়ত অনেক কষ্ট পান যখন চিন্তা করেন আপনার এটা নাই, ওটা নাই, অনেক সমস্যা। জীবনটা কে অনেক অর্থহীন মনে হয়। চাইলেই অনেক কিছু করতে পারেন না। একটা শখ পূরণ করতে পারেন না। প্রতিটা দিন গুনে গুনে আপনাকে পার করতে হয়।

আজকের লিখাটা আপনার জন্য। আমরা যারা মধ্যবিত্ত। আমাদের মাসের ১৫ টা দিন যেতে না যেতেই পকেটা ফাঁকা হয়ে যায়। আর বাকি দিনগুলো যে কিভাবে কাটে তা আর অন্য কেউ বুঝবে না। স্বাভাবিক নিয়মের বাহিরে যদি কিছু এসে হাজির হয়! এই ধরুন কোন এক আত্মীয় স্বজনের বিয়ে, হঠাৎ কেউ অসুস্থ হয়ে পড়ল তাহলে?

ভাল রেস্টুরেন্টে গিয়ে সবাইকে খাওয়ার প্লেন কতবার যে হয়েছে। কিন্তু সময়ই করতে পারছি না! আসলে সময় তো আছে কিন্তু যা নেই তা বুঝাতে যে কষ্ট হয়। শেষ কবে যে সবাইকে নিয়ে কোথাও ঘুরতে বেরিয়েছিলেন তা হয়ত ভুলেই গিয়েছেন। শত কষ্টের মাঝে আপনি কি ভেবে দেখেছেন এই বিষয়গুলোঃ

 

১। সবার জীবন অনেক সুখের হয় নাঃ

আমাদের প্রত্যেকের জীবনটা একেকটা গল্প। তাই একজনের গল্পটা অন্যজনের সাথে কিছুটা মিলে গেলেও গল্পটা কিন্তু অনন্য, আলাদা এবং শুধু আপনারই জন্য। হয়ত আপনার জীবনে দুঃখটাই বেশি। সবার জীবন কি আর সুখের হয়? আপনি চেষ্টা করুন, পরিশ্রমী হউন আর ধৈর্য্য ধারন করুন।

২। অনেকের জীবনে দুঃখ কষ্ট লেগেই থাকেঃ

আপনি দুর্ভাগ্যবশত এই অনেকের মাঝে একজন যার জীবনে দুঃখ কষ্ট লেগেই আছে। যেন আপনার সাথে হাজার বছরের বন্ধুত্ব। আপনিও এক কাজ করুন। তাকে আপাতত আপনার বন্ধু বানিয়ে ফেলুন। দেখবেন আপনি অনেক মানিয়ে নিয়েছেন। বিশ্বাস করুন এই দুঃখ কষ্ট আপনার জীবনে বেশি দিন থাকবে না, যদি আপনি না ভেঙ্গে পড়েন। অনেকে সময় জীবনের সাথে রক্ষনাত্বকভাবে খেলতে হয়। আপাতত এটাই করুন। সুসময় আপনারও আসবে।

 

৩। যত হতাশ হবেন ততই দুঃখ কষ্ট বাড়বেঃ

এই কঠিন পরিস্তিতে আপনি যত বেশি হতাশ হবেন ততই আপনার কষ্ট বাড়বে। আপনাকে এই হতাশা থেকে মুক্তি পেতে হবে। আপনি এই আর্টিকেলটি পড়ে দেখুন যদি কিছু কাজ হয়।

 

৪। একবার তাদের কথা ভাবুন তোঃ

তাদের কথা একটু ভেবে দেখুন যারা রাস্তায় ঘুমায়, রাস্তার ময়লা আবর্জনা খেয়ে বেঁচে থাকে, কারো হাত নেই, কারো পা নেই, যারা অনেক অসুস্থ হয়ে মৃত্যুর সাথে লড়ছে; আপনি নিশ্চয় তাদের থেকে অনেক ভাল আছেন।

আরো পড়ুনঃ পুঁথিগত বিদ্যার বাইরে শিক্ষার আলো যেভাবে ছড়ানো যায়

৫। সমস্য গুলো সমাধানের চেষ্টা করুনঃ

আপনার যে সমস্যাগুলো আছে সেগুলো সমাধানের চেষ্টা করুন। মনে রাখবেন আপনি জীবনে সুখী হতে পারেন শুধুমাত্র আপনার জন্যেই। আপনার সমস্যা গুলো সমাধানের জন্য অন্য কেউ এগিয়ে আসবে না। আপনি সাহসী হউন আর নিজের সমস্যা গুলো সমাধানের সৎ চেষ্টা করুন। আল্লাহ আপনাকে নিশ্চয় সহযোগিতা করবেন।

 

৬। ভাল মানুষের সাথে মিশুনঃ

খারাপ মানুষের সংখ্যা বেশি হলেও ভাল মানুষও আছে। আপনি তাদের সাথে মিশুন। তাদের কিছু কথা, পরামর্শ আপনার জীবন যুদ্ধে অনেক কাজে আসবে। তারা আপনাকে কখনো বিপদে ফেলবে না। বরং সামর্থ অনুযায়ী আপনাকে সহযোগিতা করবে।

 

৭। আমরা যাদের অনেক সুখি দেখি তাদের ও অনেক সমস্যা রয়েছেঃ

এটাই সত্য, সবার জীবনেই ছোট বড় সমস্যা, দুঃখ-কষ্ট রয়েছে। যাদের কে আমাদের অনেক সুখি মনে হয় তাদের ও অনেক সমস্যা রয়েছে যা আমরা জানিনা। কিন্তু আপনার সমস্যা গুলো কে আপনার কাছে বড় মনে হবে এটাই স্বাভাবিক। আমার এক শিক্ষক আমাকে একটা কথা বলেছিলেনঃ

“সুখি হতে চাইলে তোমার চেয়ে যারা অনেক কষ্টে আছে তাঁদের দিকে থাকাও, নিজেকে সুখি মনে হবে,
আর ভাল ছাত্র হওয়ার জন্য তোমার চেয়ে যারা অনেক ভাল তাঁদের দিকে থাকাও, তারা যদি পারে তবে তুমিও পারবে।”

 

কথাগুলো মনে হয়েছে আপনাদের সাথে শেয়ার করি। এমন অনেক মানুষ আছে যাদের জীবনে এই বিষয়গুলো অনেক বেশি জড়িত। আমার এই কথা গুলো যদি উনাদের জীবনে কাজে লাগে তাহলেই আমার লিখাটা স্বার্থক। সবার জন্য শুভ কামনা রইল, সবার জীবন অনেক সুন্দর হউক।


শেয়ার করুন

Leave a Comment